প্রীতি প্রেমের পুণ্য বাঁধনে যবে মিলি পরস্পরে,স্বর্গ আসিয়া দাঁড়ায় তখন আমাদের কুঁড়েঘরে।

মানুষের কল্পনায় স্বর্গ হলো এক অপার আনন্দ নিকেতন। সেখানে দুঃখের প্রবেশ নিষেধ। স্বর্গ হলো সুখের রাজ্য। সেখানে সর্বদা সুখ ও শান্তি বিরাজমান। এই পৃথিবীর সমস্ত মানুষ যদি মৈত্রী, প্রীতি ও প্রেমের বন্ধনে মিলিত হয় তাহলে এই পার্থিব ও সমাজে স্বর্গের মতো শান্তি স্থাপিত হবে। কেবলমাত্র স্নেহ, প্রীতি, ভক্তি, সরলতা দ্বারাই এই পৃথিবীতে স্বর্গ স্থাপন করা যায়। কিন্তু এই পৃথিবীর শান্তি আজ বিঘ্নিত। হিংসা,বিদ্বেষ, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার নাগপাশে এই পার্থিব সমাজ জর্জরিত।

আজ পৃথিবীর পরিবেশ শান্তিময় নয়। অশান্তি এই পৃথিবীর পার্থিব ও পরিবেশে ছেয়ে গেছে। মানুষে মানুষে হিংসা বিদ্বেষ পরস্পরকে পরস্পরের থেকে দূরে সরিয়ে দিচ্ছে। ফলে হিংসা, মারামারির কালো আঁধার ছেয়ে ফেলেছে পৃথিবী কে। মানুষ নিজের স্বার্থসিদ্ধির জন্য মনুষ্যত্ব ভুলে অপরকে করছে নিপীড়িত,নির্যাতিত, বঞ্চিত, লাঞ্ছিত। ফলে এই পৃথিবীর পরিবেশ হচ্ছে দূষিত। এই পার্থিব ও পরিবেশ থেকে শান্তি বিদূরিত হচ্ছে। মানুষে মানুষে বিরোধ বেড়েই চলছে। ফলে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ,ভ্রাতৃ বিরোধ পরিবেশকে কলুষিত করছে।

এই পৃথিবী থেকে হিংসা, বিদ্বেষ দূর করে শান্তি স্থাপন করতে হলে এই পৃথিবীর প্রতিটি মানুষকে প্রেম, মৈত্রী ও ভালবাসার বন্ধনে মিলিত হতে হবে। যেদিন এই পৃথিবীর মানুষ হিংসা ভুলে মৈত্রীর বন্ধনে মিলিত হবে সেদিন সমস্ত সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, যুদ্ধ, ভ্রাতৃবিরোধ দূর হবে এবং সমস্ত তরবারিই কাঠের তরবারিতে পরিণত হবে। এর ফলে এই পৃথিবী শান্তিময় হয়ে উঠবে। এই পৃথিবীর মধ্যে স্বর্গীয় শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে।

x

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts
Scroll to Top